স্বামীর মন জয় করার উপায় কি ? - জানতে চাই | বাংলা প্রশ্ন উত্তর বিষয়ক ওয়েবসাইট
আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম । আপনি নিবন্ধন করা ছাড়াই আমাদের ওয়েবসাইটটি পড়তে পারবেন। তবে সর্বাধিক সুবিধা পেতে মাত্র ৩০ সেকেন্ডে এখানে ক্লিক করে নিবন্ধন করুন। আপনি কি জানতে চান তা খুঁজে না পেলে এই সাইটের সার্চ বক্সে বাংলায় লিখে সার্চ করুন। তাও না পেলে আমাদের কাছে ফ্রী তে আপনার প্রশ্নটি করুন, আশা করি জবাব পাবেন।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
594 বার প্রদর্শিত
"ইসলামিক" বিভাগে করেছেন

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(89 পয়েন্ট)
594 বার প্রদর্শিত
কিভাবে স্বামীর মন জয় করা যায়

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(109 পয়েন্ট)

নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু //     লেখাটি সংগৃহীত

স্বামীর ভালবাসা অর্জনের উপায়  সমস্ত বোনদের জন্য

স্বামী-স্ত্রী। পৃথিবীর সবচেয়ে আপন এবং মধুর একটি সম্পর্কের বন্ধন। পবিত্র কোরানে আল্লাহ মহান স্বামী-স্ত্রীর একজনকে অপরজনের পোশাক বলেছেন। একজনকে অপরজনের সম্পূরক বানিয়েছেন। সৃষ্টিগত কৌশলতায় একজনকে করেছেন অপরজনের সহায়ক। মধুর এই সম্পর্ককে আরো ফলপ্রসূ করার জন্য আল্লাহ মহান কিছু বিধান অনুসরণ করার তাগিদ দিয়েছেন। স্বামীর ওপর স্ত্রীর এবং স্ত্রীর ওপর স্বামীর কিছু অধিকার বা হক নির্ধারণ করে দিয়েছেন তিনি। এককভাবে স্বামী কিংবা স্ত্রীর প্রচেষ্টায় একটি সংসারে কখনো সুখ আসতে পারে না। সংসারের সুখের জন্য উভয়ের সম্মিলিত অংশগ্রহণ প্রয়োজন। স্ত্রীর ওপর স্বামীর কিছু হক বা অধিকার রয়েছে। ইসলামী বিধান মোতাবেক স্ত্রীর ওপর অর্পিত এই হক বা অধিকারগুলো আদায় করা আবশ্যক। ইসলামী শরিয়ার পরিভাষায় যাকে ওয়াজিব বলা হয়। তিবরানি শরিফের একটি হাদিসে স্ত্রীর দায়িত্বে স্বামীর হক বা অধিকারের বর্ণনা দিতে গিয়ে বলা হয়েছে, স্ত্রীর ওপর স্বামীর হক হচ্ছে, তার প্রাপ্য এবং তাকে প্রদত্ত অঙ্গীকার/ওয়াদাগুলো যথার্থ মর্যাদা ও গুরুত্বের সঙ্গে পালন করা। স্বামীর আদেশ-নিষেধ পালন করা। স্বামীর অনুমতি ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়া এবং স্বামী পছন্দ করে না এমন কোনো বিষয় কখনই না করা। [তিবরানি] এছাড়া একজন স্ত্রীর দায়িত্বে স্বামীর আরো কিছু হক বা অধিকারের কথা বিভিন্ন সহীহ হাদিসের বর্ণনা থেকে পাওয়া যায়। সেগুলো হলো- ১. যথাযথভাবে স্বামীর অনুগত থাকা এবং স্বামীকে মেনে চলা। ২. শরিয়তের সীমার মাঝে থেকে স্বামীর প্রতি আদব, খেদমত, মন জয় ও সন্তুষ্টি অর্জন করার চেষ্টা করা। একটি কথা মনে রাখতে হবে, স্বামীর মন জয় বা সন্তুষ্টি অর্জন করার জন্য শরিয়তবিরোধী কোনো কাজ করা যাবে না, যদি সেটা স্বামীর আদেশ বা পছন্দ হয় এবং এক্ষেত্রে শালিনভাবে নিজের অপরাগতা প্রকাশ করতে হবে। ৩. সামর্থ্যরে অতিরিক্ত কোনো বিষয়ে স্বামীকে চাপ প্রয়োগ না করা। ৪. অনুমতি ছাড়া স্বামীর সম্পদ বা অন্য যে কোনো প্রকার আমানত ব্যয় না করা। ৫. স্বামীর পরিবারের আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে এমন কোনো আচরণ না করা যাতে স্বামী কষ্ট পান। ৬. ইসলামী বিধান মোতাবেক যাদের সঙ্গে দেখা করা নিষেধ, তাদের সঙ্গে কোনো প্রকার দেখা-সাক্ষাৎ না করা বা পর্দা বিধান মেনে চলা। রাসুল [সা.] বলেছেন, যে স্ত্রী তার স্বামীর কষ্টদায়ক আচরণে ধৈর্য ধারণ করবে, আল্লাহ তাকে ফেরাউনের স্ত্রী হজরত আছিয়ার সমতুল্য সাওয়াব দান করবেন।মাওলানা মিরাজ রহমান

  • নারীসুলভ আচরণ করুন (যেমনঃ কোমল হওয়া), স্বামীরা তাদের স্ত্রীর জায়গায় কোন পুরুষ চায় না!
  • সুন্দর/আকর্ষণীও পোশাক পরুন। আপনি যদি গৃহিণী হন, সারাদিন ধরে রাতের পোশাক (ঢিলাঢালা আরামদায়ক পোশাক) পরে থাকবেন না।
  • ঘাম/মশলা জাতীয় গন্ধ থেকে পরিচ্ছন্ন ও সুরভিত থাকুন।
  • আপানর স্বামী বাইরে থেকে ঘরে ঢোকার সাথে সাথে আপানার যাবতীয় সমস্যার কথা বলা শুরু করবেন না। তাকে কিছুটা মানসিক বিরতি দিন।
  • বার বার জিজ্ঞেস করবে না, ‘কি ভাবছ?’
  • অনবরত দোষারোপ করা থেকে নিজেকে বিরত রাখুন, যতক্ষণ পর্যন্ত না আল্লাহ আপনাকে আসলেই সত্যিকার অর্থে অভিযোগ করার মত কিছু দেন।
  • অন্যের কাছে নিজেদের স্বামী-স্ত্রীর সমস্যার কথা বর্ণনা করা থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন; এমনকি সাহায্য বা পরামর্শ চাওয়ার অজুহাতেও না! আপনি যদি মনে করেন আপনার বৈবাহিক সমস্যার আইনানুগ সমাধান প্রয়োজন, তাহলে এমন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির কাছে যান যেঃ
    • কোন অন্যায়ের ব্যপারে ভুল সংশোধনের মাধ্যমে মধ্যস্থতা করে দিতে পারে, যাতে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে আবার সুন্দর সমন্বয়ে মিল হয়ে যায়, অথবা
    • উভয়পক্ষের সম্মতিতে সৌহার্দপূর্ণভাবে বিচ্ছেদ করাতে পারেন।
  • আপানর শাশুড়ির সাথে ভাল আচরণ করুন, যেমনটি আপনি চান আপানার স্বামী আপানার মায়ের সাথে করুক।
  • ইসলামে স্বামী স্ত্রীর অধিকার ও দায়িত্ব সম্পর্কে জানুন। অধিকার আদায়ের চেয়ে আপনার দায়িত্ব সঠিকভাবে সম্পাদনের ব্যপারে আগে সজাগ হন।
  • যখন সে ঘরে আসে, দরজায় এমন ভাবে ছুটে যান যেন আপনি তারই অপেক্ষায় ছিলেন। হাসিমুখে তাকে সালাম দিন।
  • আপনার বাসস্থান পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখুন; অন্তত আপনার স্বামী যতটুকু পরিচ্ছন্ন দেখতে পছন্দ করে।
  • তাকে এমন বিষয়ে প্রশংসা করুন যে বিষয়ে তিনি নিজে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী নন (যেমন, চেহারা, বা বুদ্ধিমত্তা ইত্যাদি)। এটা তার আত্মবিশ্বাস বাড়াবে।
  • তাকে বলুন, স্বামী হিসেবে তিনি শ্রেষ্ঠ।
  • তার পরিবার পরিজনের সাথে প্রায়ই যোগাযোগ করুন।
  • তাকে সহজ কোন গৃহস্থালি কাজ দিন, কাজটি করে ফেললে তাকে ধন্যবাদ জানান। এতে সে আরও উৎসাহিত হবে।
  • সে যখন কোন একঘেয়ে কথা বলে, তার কথা ধৈর্য ধরে শুনুন। মাঝে মাঝে তাকে প্রশ্নও করুন যাতে সে বুঝতে পারে আপনি তার কথা আগ্রহ নিয়ে শুনছেন।
  • তাকে ভাল কাজে উৎসাহিত করুন।
  • তার মেজাজ খারাপ থাকে, তাকে কিছুটা সময় একা থাকতে দিন। ইনশাআল্লাহ, একসময় তার মেজাজ ঠিক হয়ে যাবে।
  • আপানাকে খাদ্য ও আশ্রয় দেওয়ার জন্য তাকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান। এটি অনেক বড় ব্যপার।
  • সে যদি আপানার সাথে রেগে গিয়ে চেঁচাতে থাকে, আপনি চুপ থেকে তাকে চেঁচাতে দিন। দেখবেন আপনাদের বিবাদ অনেক দ্রুত থেমে গেছে। পরে যখন সে শান্ত হবে, তখন আপনি আপনার কথা বোঝাবেন।
  • যখন আপনি তার উপর রেগে যান, তখন বলবেন না যে তিনি আপনাকে রাগিয়েছেন, বরং বলুন তার কাজে আপনি আপসেট হয়েছেন। আপনার রাগকে তার দিকে নির্দেশ না করে তার কাজ বা উদ্ভুত পরিস্থিতির দিকে নির্দেশ করুন।
  • মনে রাখবেন, আপনার স্বামীরও আবেগ অনুভুতি আছে, কাজেই সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।
  • তাকে তার বন্ধুদের সাথে কোন রকম অপরাধবোধ ছাড়া কিছু সময় কাটাতে দিন, বিশেষতঃ যদি তারা ভাল মানুষ হয়। তাকে বাইরে যেতে উৎসাহ দিন যাতে সে নিজেকে ঘরের ভেতর ‘আবদ্ধ’ বোধ না করে।
  • স্বামী যদি আপনার কোন সামান্য কাজে বা অভ্যাসে বিরক্ত হয় (যেটি আপনি সহজেই নিয়ন্ত্রন করতে পারেন), সেটি করা বন্ধ করে দিন।
  • আপনার মনের কথা তাকে খোলাখুলি বলতে শিখুন; সে সবসময় বুঝে নেবে বা অনুমান করতে পারবে এমন চিন্তা করবেন না। আপনার অনুভূতি প্রকাশ করা শিখুন।
  • ছোট ছোট বিষয়ে রেগে যাবেন না।
  • তার সাথে হাসি মশকরা করুন, যাতে আপনাদের দুই জনের মনই প্রফুল্ল হয়।
  • তাকে বলুন, আপনি স্ত্রী হিসাবে সেরা, এবং এমন বিষয়ে নিজের উল্লেখ করুন যেটা আপনি জানেন আসলেই প্রশংসার যোগ্য। কিন্তু অহংকার করে নয়, বিনয় এবং আত্মবিশ্বাসের সাথে।
  • ইংরেজিতে একটা প্রবাদ আছে- "The way to a man’s heart is through his stomach" তাই তার পছন্দের খাবার তৈরি করা শিখুন।
  • আপনার পরিচিত বা আত্মীয় স্বজনের কাছে কক্ষনও তার বদনাম করবেন না। তারা যদি একথা মেনে নেয় ও বিশ্বাস করা শুরু করে, তাহলে তা আপানকেই পাল্টা আহত করবে। আপনি নিজেই তখন হীনমন্যতায় ভুগবেন এই ভেবে যে আপনার স্বামী খারাপ, আবার অন্যরাও ভাববে যে আপনার স্বামী খারাপ। আল্লাহ বলেছেন –

وَيْلٌ لِّكُلِّ هُمَزَةٍ لُّمَزَةٍ

"ধ্বংস ওই প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য যে পেছনে ও সম্মুখে লোকের নিন্দা করে।" সুরা হুমাজাঃ১)

  • বুদ্ধিমত্তার সাথে আপনার সময়টাকে কাজে লাগান, এবং আপনার দায়িত্ব সুন্দরভাবে সম্পাদন করুন। এতে আপনিও খুশি হবেন, আপনার স্বামীরও ভাল লাগবে।
  • উপরের  সবগুলো কাজ আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য করুন; দেখবেন আপনি যা করছেন আল্লাহ তায়ালা তাতে বরকত দেবেন।
  • স্বামী স্ত্রী একে অপরের পছন্দ-অপছন্দ, করণীও-বর্জনীয় বিষয়গুলো বিজ্ঞতার সাথে আলোচনা করবেন। স্বামীকে এমন ভাবে আদেশ বা নির্দেশ দেবেন না যেন মনে হয় সে আপনার ‘অধীনস্ত’।  বরং কুরআনে বলা হয়েছে –

هُنَّ لِبَاسٌ لَّكُمْ وَأَنتُمْ لِبَاسٌ لَّهُنَّ

তারা তোমাদের জন্য আবরণ, এবং তোমরা তাদের জন্য আবরণ (সুরা বাকারাঃ১৮৭)

  • আপনার স্বামীকে বারবার বলুন আপনি তাকে কত ভালোবাসেন।
  • আপনার স্বামীর সাথে খেলাধুলায় প্রতিযোগিতা করুন, এবং তাকে জিততে দিন।
  • সুস্থ থাকুন, এবং নিজের স্বাস্থ্যের যত্ন নিন, যাতে বলিষ্ঠ ভাবে একজন মা, স্ত্রী ও গৃহিণীর দায়িত্ব পালন করতে পারেন। ইনশাআল্লাহ এতে আপনি মোটা হবেন না।
  • আচার-আচরনে মার্জিত থাকুন (যেমনঃ ঘ্যানঘ্যান করা, অতি উচ্চস্বরে হাসা বা কথা বলা, থপথপ করে সশব্দে হাঁটাচলা করা ইত্যাদি থেকে বিরত থাকুন।)
  • স্বামীর অনুমতি ছাড়া বাড়ির বাইরে যাবেন না, আর তাকে না জানিয়ে তো অবশ্যই বের হবেন না।
  • খেয়াল রাখুন তার পরিধেয় কাপড়গুলো যেন নিয়মিত পরিষ্কার থাকে।
  • জরুরি অথবা বিতর্কিত বিষয়ে তার সাথে এমন সময় আলোচনা করবেন না যখন সে ক্লান্ত অথবা তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকে। সঠিক সময়ে সঠিক আলোচনা করুন।
  • আপনার স্বামী আপনার জন্য কষ্ট করে কাজ করে উপার্জন করছেন এবং আপনার খাওয়া-পরার বন্দোবস্ত করছেন- এই ব্যপারটির সবসময় প্রশংসা করুন। এতে তার কাজের স্পৃহা বাড়বে।
  • আপনার চুল সব সময় আঁচড়ানো রাখুন।
  • মাঝে মাঝে উপহার দিন। উপহার স্বরূপ তাকে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসও দিতে পারেন।
  • তার আগ্রহ ও শখের ব্যপারে আপনিও আগ্রহী হওয়ার চেষ্টা করুন।
  • অতিরিক্ত কেনাকাটা করবেন না...তার সমস্ত টাকা খরচ করে ফেলবেন না।
  • তার জন্য নিজেকে আকর্ষণীও করে সাজান, তার সাথে খুনসুটি করুন।
  • আপনার ত্বকের যত্ন নিন, বিশেষতঃ চেহারার। চেহারাই আকর্ষণের মূল কেন্দ্রবিন্দু।
  • অন্তরঙ্গ ব্যপারে যদি আপনার কোন অসন্তুষ্টি থাকে, তাকে জানান, তার সাথে কথা বলুন। তাকে বুঝতে সাহায্য করুন। নীরব থেকে পরিস্থিতি খারাপ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন না।
  • প্রতিদিন, প্রতি ওয়াক্তের নামাজে আল্লাহর কাছে দোয়া করুন যেন তিনি আপনাদের মধ্যকার ভালবাসার ও সহমর্মিতার বন্ধনকে আরও দৃঢ় করে দেন এবং শয়তানের অনিষ্ট থেকে হেফাজত করেন। দোয়ার মত কার্যকরী কিছুই নেই। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালবাসা তখনই থাকে যখন আল্লাহ তাদের মাঝে এটা দেন।
  • কক্ষনো নিজের স্বামীর সাথে অন্যদের স্বামীর তুলনা করবেন না। যেমনঃ কখনও বলবেন না, ‘অমুকের স্বামী তো এমন করে না, তুমি কেন এমন কর...’
  • আপনার স্বামী যেমন, তাতেই সন্তুষ্ট থাকার চেষ্টা করুন। কারণ, কেউ নিখুঁত নয়, আপনিও নন। আর যদি, ত্রুটিহীন, নিখুঁত সঙ্গী চান তাহলে জান্নাতে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। ইনশাআল্লাহ সেখানে আপনি এবং আপনার স্বামী দু’জনেই হবেন নিখুঁত ও ত্রুটিহীন।
  • তাহাজ্জুদ নামাজের সময় তাকে ডাকুন এবং আপনার সাথে তাকেও নামাজ পড়তে বলুন।
  • আল্লাহর কাছে দোয়া করুন যেন তিনি আপনাদের দুজনকেই মুত্তাকী হতে সাহায্য করেন।
  • সর্বাগ্রে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য সর্বতোভাবে চেষ্টা করুন। যদি সমস্ত স্ত্রীরা আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের চেষ্টায় রত থাকে, নিশ্চিতভাবেই তারা তাদের স্বামীদের ভালবাসা ও শ্রদ্ধা অর্জন করতে পারবে। আর মনে রাখবেন, আল্লাহ যদি আপনার উপর সন্তুষ্ট থাকেন, তাহলে ফেরেশতারা আপানাকে ভালবাসবে, সমস্ত সৃষ্টি আপনাকে ভালবাসবে।

আল্লাহ যেন সকল স্বামী স্ত্রীর বন্ধনকে হেফাজত করেন, এবং দ্বীনের শ্রেষ্ঠ আদব সমূহ বোঝার এবং তা কাজে লাগিয়ে সংসার জীবনকে সুন্দর ভাবে পরিচালনা করার তৌফিক দেন। আমীন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
0 টি উত্তর
1
10 এপ্রিল "ইন্টারনেট" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Monsur

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(93 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
0 টি উত্তর
2
23 ফেব্রুয়ারি "ইন্টারনেট" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md.Ashraf Uddin Khan

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(195 পয়েন্ট)
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
1 উত্তর
3
19 ডিসেম্বর 2017 "মোবাইল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিয়াজ বাবু

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(102 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
1 উত্তর
4
19 ডিসেম্বর 2017 "মোবাইল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিয়াজ বাবু

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(102 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
0 টি উত্তর
5
09 এপ্রিল "ইসলামিক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নিরব

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(2 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
0 টি উত্তর
6
05 এপ্রিল "ফেসবুক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নিরব

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(2 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
1 উত্তর
7
29 এপ্রিল 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Abinash Ray

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(92 পয়েন্ট)
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
2 টি উত্তর
8
26 ডিসেম্বর 2017 "চাকরি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Jahid

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(99 পয়েন্ট)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
1 উত্তর
9
23 ডিসেম্বর 2017 "মোবাইল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Jahid

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(99 পয়েন্ট)
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
1 উত্তর
10
29 অক্টোবর 2018 "ইসলামিক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Riya

নতুন নিবন্ধিত সদস্য

(99 পয়েন্ট)










ফ্রী একটি প্রশ্ন করুন



জানতে চাই (FreeJobAlert4u.com) সাইটে আপনাকে সুস্বাগতম। এটি একটি বাংলা প্রশ্ন উত্তর বিষয়ক ওয়েবসাইট। এখানে আপনি ফ্রী তে যে কোনো প্রশ্ন করতে পারবেন এবং অন্যান্য সদস্যদের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবেন।
তবে সর্বাধিক সুবিধা পেতে মাত্র ১০ সেকেন্ডে নিবন্ধন করুন।

আপনি কি জানতে চান তা খুঁজে না পেলে এই সাইটের সার্চ বক্সে সার্চ করুন। তাও না পেলে আমাদের কাছে ফ্রী তে আপনার প্রশ্নটি করুন, আশা করি জবাব পাবেন।
যে কোন প্রশ্নের জবাব আপনার জানা থাকলে দয়া করে তার জবাব দিয়ে অন্যের উপকার করুন।

552 টি প্রশ্ন

397 টি উত্তর

53 টি মন্তব্য

355 জন সদস্য

31 Online
0 Member And 31 Guest
Today Visits : 1932
Yesterday Visits : 1990
All Visits : 549248
  1. siteadmin

    329 পয়েন্ট

  2. Md.Ashraf Uddin Khan

    195 পয়েন্ট

  3. Roki

    193 পয়েন্ট

  4. All Result BD

    128 পয়েন্ট

  5. Didarul Islam

    109 পয়েন্ট

  6. মোঃ asss

    107 পয়েন্ট

  7. kobir

    106 পয়েন্ট

  8. আহমেদ

    105 পয়েন্ট

  9. My Result 24

    103 পয়েন্ট

  10. ooggy

    102 পয়েন্ট

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

result বাংলাদেশ রোজা কত সালে কত ফেসবুক ইন্টারনেট প্রথম অর্থ প্রতিষ্ঠিত হয় নামাজ admit card নাম এসএসসি রেজাল্ট একটি বাড়ি একটি খামার পরীক্ষার রেজাল্ট কত তারিখে jsc নামের অর্থ গুগল জনক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ উপায় একটি বাড়ি একটি খামার পরীক্ষার ফলাফল ওয়েবসাইট নিয়ত ফজর বিশ্ব এস এস সি bb কিভাবে psc টাকা আয় জনসংখ্যা কয়টি ভারত কোনটি কম্পিউটার ফেসবুক গ্রুপ বড় করার উপায় বাংলাদেশ জেল পুলিশ স্ত্রী ইউটিউব কে psc result 2017 ফরজ jdc চালু হয় দিবস রমজান কাজা গনতন্ত্র হিমালয় পর্বত চেনার উপায় কবে দিবে শিক্ষক নিবন্ধন অভিযোগ ও অনুরোধ ২০১৯ কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার টেলিটক একটি বাড়ি একটি খামার রেজাল্ট পুলিশ নিয়োগ 2018 পুলিশ নিয়োগ সার্কুলার ২০১৮ আয় ইনকাম পরীক্ষা গ্রুপ দাম মানসিক হাসপাতাল পাবনা বাংলাদেশ সাবমেরিন বাংলাদেশ রেলওয়ে চুল পরা জাতিসংঘ সেহেরি ইফতার রোজা ভাঙার কারণ এসি আবিষ্কারক চীন ডায়াবেটিস আয়তন কাকে বলে মুখের কালো দাগ ব্রণের দাগ ক্রিম বগুড়া জেলা মেয়াদ উত্তীর্ণ কত প্রকার মোবাইল ফোন মনিটর গুগল প্লাস শব্দের অর্থ সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় ফাজিল রেজাল্ট এডসেন্স ওজন মেয়েদের প্রধানমন্ত্রী ধাধা জাতীয় দেশের
...